ঢাকা ০২:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপের টি টোয়েন্টি সুখবর এলো দলের জন্য 

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:২৪:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০২৪ ৫১ বার পড়া হয়েছে

পাঁচ বছর আগেও বেশির ভাগ ক্রিকেটার ৫০ ওভারের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট মনে করতেন। কিন্তু ২০২৪ সালে এসে, ২০ ওভার ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে। একই সঙ্গে, ক্রিকেটের তিন সংস্করণের মধ্যে টেস্টকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা ক্রিকেটারের সংখ্যাও কমেছে।

সম্প্রতি পেশাদার ক্রিকেটারদের মধ্যে পরিচালিত এক জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘিরে ডব্লুসিএ (ওয়ার্ল্ড ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন, সাবেক ফিকা) এই জরিপটি করেছে। বিশ্বজুড়ে ১৩টি দেশের ৩৩০ জন পেশাদার ক্রিকেটার এতে অংশ নেন।

ডব্লুসিএর জরিপের ভিত্তিতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ক্রিকেটের জনপ্রিয় পোর্টাল ইএসপিএনক্রিকইনফো। প্রতিবেদনে বলা হয়, জরিপে ক্রিকেটারদের মধ্যে টেস্ট ক্রিকেট ও ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রতি মনোভাব বদলের চিত্র ফুটে উঠেছে। ২০১৯ সালের তুলনায় গত পাঁচ বছরে টি-টোয়েন্টির গুরুত্ব বেড়েছে ক্রিকেটারদের কাছে, বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে।

২০১৯ সালের জরিপে প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ৮৫ জনই ৫০ ওভারের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট বলেছিলেন। তখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টের জায়গায় রেখেছিলেন ১৫ শতাংশ ক্রিকেটার। কিন্তু ৫ বছরের ব্যবধানে ২০২৪ সালে এসে ওয়ানডে বিশ্বকাপের গুরুত্ব কমে দাঁড়িয়েছে ৫০ শতাংশে। বিপরীতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সবচেয়ে এগিয়ে রাখার হার বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। এখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট মনে করছেন ৩৫ শতাংশ ক্রিকেটার, আর বাকি ১৫ শতাংশ মনে করছেন ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ (২০১৯ সালে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ছিল না)।

জরিপের তথ্য সংগ্রহের সময় খেলোয়াড়দের বয়সের দিকটি বিশেষ বিবেচনায় নেওয়া হয়। দেখা গেছে, ২০১৯ সালে ২৬ বছরের কম বয়সী ক্রিকেটারদের মধ্যে ৮৬ শতাংশই ওয়ানডে বিশ্বকাপকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করতেন। কিন্তু বর্তমান সময়ে একই বয়সী পেশাদার ক্রিকেটারদের মধ্যে মাত্র ৪৯ শতাংশ ওয়ানডেকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন। পাঁচ বছর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে এগিয়ে রাখার হার ছিল ১৪ শতাংশ, যা এখন বেড়ে ৪১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া, অনূর্ধ্ব-২৬ বছর বয়সীদের মাত্র ১০ শতাংশই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট মনে করেন।

ক্রিকেটের তিন সংস্করণের মধ্যে ক্রিকেটারদের গুরুত্বের তালিকায় টেস্ট পিছিয়ে পড়েছে। ২০১৯ সালের জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৮২ শতাংশই টেস্টকে ক্রিকেটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংস্করণ মনে করতেন, যেখানে টি-টোয়েন্টিকে এগিয়ে রেখেছিলেন মাত্র ১১ শতাংশ এবং ওয়ানডেকে ৭ শতাংশ। কিন্তু এখন টেস্ট ক্রিকেটকে সবার ওপরে রাখা ক্রিকেটারের সংখ্যা নেমে এসেছে ৪৮ শতাংশে।

অর্থাৎ প্রতি ১০০ জনের ৫২ জনই ক্রিকেটের পুরোনো ও দীর্ঘতম সংস্করণকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফরম্যাট মনে করেন না। তাঁদের মধ্যে ৩০ শতাংশ টি-টোয়েন্টিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন, আর ২২ শতাংশ ওয়ানডেকে এগিয়ে রাখছেন। এই দিক থেকে টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ওয়ানডেকেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা ক্রিকেটারের সংখ্যা বেড়েছে।

ডব্লুসিএর প্রধান নির্বাহী টম মোফাত খেলোয়াড়দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার জন্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজুড়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে ভ্রমণ করেছেন। খেলোয়াড়দের মধ্যে সাদা বল ক্রিকেটের গুরুত্ব বাড়ছে জানিয়ে তিনি ক্রিকইনফোকে বলেন, ‘এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দারুণ সাড়া পেয়েছে। আমাদের সাম্প্রতিক বৈশ্বিক খেলোয়াড় জরিপের তথ্য বলছে, ক্রিকেটারদের মধ্যে টি-টোয়েন্টিকে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রবণতা বাড়ছে।’

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে আছেন অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা। ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের ক্রিকেটারদের সংগঠন না থাকায় তাঁরা জরিপে অংশ নেননি। এ বছরের শেষ দিকে জরিপের পূর্ণাঙ্গ তথ্য প্রকাশ করবে ডব্লুসিএ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

আপলোডকারীর তথ্য

বিশ্বকাপের টি টোয়েন্টি সুখবর এলো দলের জন্য 

আপডেট সময় : ০৩:২৪:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০২৪

পাঁচ বছর আগেও বেশির ভাগ ক্রিকেটার ৫০ ওভারের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট মনে করতেন। কিন্তু ২০২৪ সালে এসে, ২০ ওভার ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে। একই সঙ্গে, ক্রিকেটের তিন সংস্করণের মধ্যে টেস্টকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা ক্রিকেটারের সংখ্যাও কমেছে।

সম্প্রতি পেশাদার ক্রিকেটারদের মধ্যে পরিচালিত এক জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ঘিরে ডব্লুসিএ (ওয়ার্ল্ড ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন, সাবেক ফিকা) এই জরিপটি করেছে। বিশ্বজুড়ে ১৩টি দেশের ৩৩০ জন পেশাদার ক্রিকেটার এতে অংশ নেন।

ডব্লুসিএর জরিপের ভিত্তিতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ক্রিকেটের জনপ্রিয় পোর্টাল ইএসপিএনক্রিকইনফো। প্রতিবেদনে বলা হয়, জরিপে ক্রিকেটারদের মধ্যে টেস্ট ক্রিকেট ও ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রতি মনোভাব বদলের চিত্র ফুটে উঠেছে। ২০১৯ সালের তুলনায় গত পাঁচ বছরে টি-টোয়েন্টির গুরুত্ব বেড়েছে ক্রিকেটারদের কাছে, বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে।

২০১৯ সালের জরিপে প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ৮৫ জনই ৫০ ওভারের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট বলেছিলেন। তখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টের জায়গায় রেখেছিলেন ১৫ শতাংশ ক্রিকেটার। কিন্তু ৫ বছরের ব্যবধানে ২০২৪ সালে এসে ওয়ানডে বিশ্বকাপের গুরুত্ব কমে দাঁড়িয়েছে ৫০ শতাংশে। বিপরীতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সবচেয়ে এগিয়ে রাখার হার বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। এখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট মনে করছেন ৩৫ শতাংশ ক্রিকেটার, আর বাকি ১৫ শতাংশ মনে করছেন ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ (২০১৯ সালে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ছিল না)।

জরিপের তথ্য সংগ্রহের সময় খেলোয়াড়দের বয়সের দিকটি বিশেষ বিবেচনায় নেওয়া হয়। দেখা গেছে, ২০১৯ সালে ২৬ বছরের কম বয়সী ক্রিকেটারদের মধ্যে ৮৬ শতাংশই ওয়ানডে বিশ্বকাপকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করতেন। কিন্তু বর্তমান সময়ে একই বয়সী পেশাদার ক্রিকেটারদের মধ্যে মাত্র ৪৯ শতাংশ ওয়ানডেকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন। পাঁচ বছর আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে এগিয়ে রাখার হার ছিল ১৪ শতাংশ, যা এখন বেড়ে ৪১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া, অনূর্ধ্ব-২৬ বছর বয়সীদের মাত্র ১০ শতাংশই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপকে আইসিসির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট মনে করেন।

ক্রিকেটের তিন সংস্করণের মধ্যে ক্রিকেটারদের গুরুত্বের তালিকায় টেস্ট পিছিয়ে পড়েছে। ২০১৯ সালের জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৮২ শতাংশই টেস্টকে ক্রিকেটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংস্করণ মনে করতেন, যেখানে টি-টোয়েন্টিকে এগিয়ে রেখেছিলেন মাত্র ১১ শতাংশ এবং ওয়ানডেকে ৭ শতাংশ। কিন্তু এখন টেস্ট ক্রিকেটকে সবার ওপরে রাখা ক্রিকেটারের সংখ্যা নেমে এসেছে ৪৮ শতাংশে।

অর্থাৎ প্রতি ১০০ জনের ৫২ জনই ক্রিকেটের পুরোনো ও দীর্ঘতম সংস্করণকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফরম্যাট মনে করেন না। তাঁদের মধ্যে ৩০ শতাংশ টি-টোয়েন্টিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন, আর ২২ শতাংশ ওয়ানডেকে এগিয়ে রাখছেন। এই দিক থেকে টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ওয়ানডেকেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা ক্রিকেটারের সংখ্যা বেড়েছে।

ডব্লুসিএর প্রধান নির্বাহী টম মোফাত খেলোয়াড়দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার জন্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপজুড়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে ভ্রমণ করেছেন। খেলোয়াড়দের মধ্যে সাদা বল ক্রিকেটের গুরুত্ব বাড়ছে জানিয়ে তিনি ক্রিকইনফোকে বলেন, ‘এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দারুণ সাড়া পেয়েছে। আমাদের সাম্প্রতিক বৈশ্বিক খেলোয়াড় জরিপের তথ্য বলছে, ক্রিকেটারদের মধ্যে টি-টোয়েন্টিকে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রবণতা বাড়ছে।’

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে আছেন অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা। ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের ক্রিকেটারদের সংগঠন না থাকায় তাঁরা জরিপে অংশ নেননি। এ বছরের শেষ দিকে জরিপের পূর্ণাঙ্গ তথ্য প্রকাশ করবে ডব্লুসিএ।