ঢাকা ০২:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফিলিস্তিনের বিজয় সম্পর্কিত আমাদের আদি ইতিহাস থেকে বুঝতে হবে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:১৮:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪ ২২ বার পড়া হয়েছে

ফিলিস্তিনের বিজয় সম্পর্কিত বলেন, আমাদের আদি ইতিহাস থেকে বুঝতে হবে। এই ভূখণ্ডের রাজনৈতিক আর অর্থনৈতিক বিবর্তনকে বুঝতে হবে মোটামুটি 4:00 আধুনিককাল পর্বে আমরা ফিলিস্তিনের ইতিহাস দেখব। আজ শুরু করব বর্তমান সাম্রাজ্য থেকে। আমরা যদি সেই গানের মতো করে দেখি আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম সেই সুন্দর দিন কাটানোর সময় থেকে আমরা ফিলিস্তিনের ইতিহাসের পথে আপনাদেরকে হাতিয়ে নিয়ে যাব। তাহলে এই কনফ্লিক্ট এই সহিংসতার উৎস অর্থাৎ বিবর্তন নিয়ে আমাদের 1:00 স্পষ্ট ধারণা হবে। অটোমান সাম্রাজ্য নিয়ে বাংলাদেশে টিভি সিরিয়াল বাংলায় অনুবাদ করে দেখানো হয়। খুবই জনপ্রিয় ছিল।

আমি দেখিনি কিন্তু এটা বুঝতে পারি এই জনপ্রিয় হওয়ার পেছনে কিছু কারণ আছে। আমরা অটোমান সাম্রাজ্যের ইতিহাস দেখব। কারণ এর সাথে জড়িয়ে আছে ফিলিস্তিনের বিবর্তনের ইতিহাস।
অটোমান সাম্রাজ্যকে ঠিক তখনই বলা যাবে না। কিন্তু যে বিশাল সাম্রাজ্য তারা গড়ে তুলেছিল যা পশ্চিমা উপনিবেশগুলো থেকে অনেক গুণে প্রগতিশীল এবং আলাদা সেই সময়ে।
ঠিক কোন কারণে অটোমান সাম্রাজ্য টিকে থাকতে পারল না সে আলাপটা আমরা করব।
সেই সময়ে উপনিবেশিক শক্তিগুলোর 1:00 তুলনামূলক আলোচনায় আমরা করি আসেন শুরু করি অটোমান সাম্রাজ্যের শক্তি আর দুর্বলতা গুলো কি কি ছিল?

আরো পড়ুন

বর্তমান সম্রাটেরা ছিল মুসলমান কিন্তু অটোমান সাম্রাজ্য ছিল 1:00 বিস্তৃত। বহু জাতি, বহু সংস্কৃতি, বহু ভাষা, বহু ধর্মের মিলিত 1:00 সমাজ।
বিশ্বের অধিবাসী ছিল খ্রিষ্টান 5%। যদি সেই সময় যদি আমরা তুলনা করি তার যে প্রতিবেশি সাম্রাজ্যগুলো ছিল কলোনী মাস্টার ছিল তার তুলনায় অটোমান সাম্রাজ্যের রিলিজ তলায় ধর্মীয় সহনশীলতা ছিল অনেক বেশি।
মাঝে মাঝে যুদ্ধ সামাজিক অস্থিরতার সময় এই অবস্থা সাময়িক পরিবর্তন ঘটলেও সাধারণ ভাবে অ্যাকাডেমিক স্কলার এরা সবাই স্বীকার করে ধর্মীয় সহনশীলতার কথা ইন ফ্যাক্ট সহনশীলতা 1:00 ঐতিহাসিক প্রয়োজন ছিল। কারণ এটা ছিল 1:00 কৃষিভিত্তিক সমাজ। এই সমাজের ফাংশনের জন্য 1:00 স্থিতিশীলতা।

এই বিষয়টা মনে রাখবেন, আমরা এ বিষয়ে ফিরে আসব। শিল্প বিপ্লব আলাপ করার সুযোগ।
অটোমান সাম্রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা ছিল ইউনিট তাদের সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত অংশে তাদের সামাজিক,ধর্মীয় এবং অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কোনও হস্তক্ষেপ করত না। শাসন ব্যবস্থা ছিল ডিসেন্ট্রালাইজ।
বিকেন্দ্রীকৃত স্থানীয়দের দিয়ে এসে গভর্নিং কাউন্সিল তৈরি করত। তারাই শাসন চালাতো। এমনকী ট্যাক্স কালেকশন ছিল ডিসেন্ট্রালাইজড।
ট্যাক্স আদায়ের অধিকার কিনে নিতে হত কেন্দ্র থেকে আর নির্ধারিত হারে 1:00 নিয়মের মধ্যে থেকে স্থানীয় কালেক্টররা ট্যাক্স আদায় করত। অটোমান সাম্রাজ্যের মানুষেরা ছিল সুখী।
ইস্তানবুলের আরেক নাম ছিল দ্য সাদাত সুখের আবাস।

আরো পড়ুন

ও 1:00 প্রশ্ন করেছে, কেউ কেন অটোমান সাম্রাজ্যে মানুষ সুখে ছিল? একজন খুব গুছিয়ে কারণগুলো লিখেছে, সময় থাকলে পড়ে দেখতে পারেন। আমি আরেকটা বিস্তারিত গেলাম।
তুরস্ক সব ধর্মের মানুষের জন্য এত আগ্রহের জায়গা ছিল যে কোথাও কেউ নিপীড়িত হলে তারা বলতো তোমরা অটোমান সাম্রাজ্যের জার্মানিতে নিপীড়িত হয়ে তুরস্কে আসা রাব্বি আইজাক যেতে।
সেটা যদি ভাইদেরকে আহ্বান জানাচ্ছে, অটোমান সাম্রাজ্যের শান্তিতে বসতি গড়তে এই ছবিটা আঁকা হয়েছে সেই ঐতিহাসিক ঘটনা কে কেন্দ্র করে যখন ইস্তাম্বুলে যার প্রতি ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ইহুদিদের কে স্বাগত জানাচ্ছেন ইসলাম।

অটোমান সাম্রাজ্যে ঠিক কখন থেকে ফিলিস্তিনি ইহুদি বসতি স্থাপিত হয়েছিল। বর্তমানে যা 15 শতকে তিন ফিউশনের সময় থেকেই ইহুদি অভিবাসীদের গ্রহণ করা শুরু করে।
ইনফ্লেশন মানে কি জানত? ক্যাথলিক চার্চের তৈরি করা 1:00 আইনি কাঠামো যা দিয়ে অখ্রিষ্টানদের কে শাস্তি দেওয়া হত। বস এর জন্য শিকার হত মুসলমান ইহুদিরা।
বাংলাদেশের মুসলমানদের কেউ কেউ ডাকেনি আইন চায়। কিন্তু এটা ভুলে যান এই ইনক্লুশন এর মাধ্যমে ব্লাসফেমি আইন দিয়ে মুসলমান আর ইহুদিদেরকে একই সাথে নিশ্চিহ্ন করার চেষ্টা করা হয়েছিল। 15 শতকে ইউরোপে।

আরো পড়ুন

এরপর থেকেই অটোমান সাম্রাজ্যে ইহুদি অভিবাসীদের গ্রহণ করার 1:00 ঐতিহ্য ছিল। কারণ যেহেতু দুই ধর্মই এই অত্যাচারের শিকার হয়েছিল।ঠিক সেই সময়ে।
ফিলিস্তিন মানে অটোমান সাম্রাজ্যের সময়ে 18 শতকে ফিলিস্তিন কেমন ছিল?
ফিলিস্তিনের জনগোষ্ঠীর 85% ছিল মুসলিম। 10 খ্রিষ্টান পাঁচ পারসেন্ট ইহুদি অটোমান সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হয়ে সংস্কৃতির মধ্যে তারা বসবাস। ফিলিস্তিন সব সময় 1:00 আন্তর্জাতিক আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল। কারণ ছিল ফিলিস্তিনকে ঘিরে নানা পবিত্র স্থান ছিল সব ধরনের।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

আপলোডকারীর তথ্য

ফিলিস্তিনের বিজয় সম্পর্কিত আমাদের আদি ইতিহাস থেকে বুঝতে হবে

আপডেট সময় : ০৩:১৮:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪

ফিলিস্তিনের বিজয় সম্পর্কিত বলেন, আমাদের আদি ইতিহাস থেকে বুঝতে হবে। এই ভূখণ্ডের রাজনৈতিক আর অর্থনৈতিক বিবর্তনকে বুঝতে হবে মোটামুটি 4:00 আধুনিককাল পর্বে আমরা ফিলিস্তিনের ইতিহাস দেখব। আজ শুরু করব বর্তমান সাম্রাজ্য থেকে। আমরা যদি সেই গানের মতো করে দেখি আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম সেই সুন্দর দিন কাটানোর সময় থেকে আমরা ফিলিস্তিনের ইতিহাসের পথে আপনাদেরকে হাতিয়ে নিয়ে যাব। তাহলে এই কনফ্লিক্ট এই সহিংসতার উৎস অর্থাৎ বিবর্তন নিয়ে আমাদের 1:00 স্পষ্ট ধারণা হবে। অটোমান সাম্রাজ্য নিয়ে বাংলাদেশে টিভি সিরিয়াল বাংলায় অনুবাদ করে দেখানো হয়। খুবই জনপ্রিয় ছিল।

আমি দেখিনি কিন্তু এটা বুঝতে পারি এই জনপ্রিয় হওয়ার পেছনে কিছু কারণ আছে। আমরা অটোমান সাম্রাজ্যের ইতিহাস দেখব। কারণ এর সাথে জড়িয়ে আছে ফিলিস্তিনের বিবর্তনের ইতিহাস।
অটোমান সাম্রাজ্যকে ঠিক তখনই বলা যাবে না। কিন্তু যে বিশাল সাম্রাজ্য তারা গড়ে তুলেছিল যা পশ্চিমা উপনিবেশগুলো থেকে অনেক গুণে প্রগতিশীল এবং আলাদা সেই সময়ে।
ঠিক কোন কারণে অটোমান সাম্রাজ্য টিকে থাকতে পারল না সে আলাপটা আমরা করব।
সেই সময়ে উপনিবেশিক শক্তিগুলোর 1:00 তুলনামূলক আলোচনায় আমরা করি আসেন শুরু করি অটোমান সাম্রাজ্যের শক্তি আর দুর্বলতা গুলো কি কি ছিল?

আরো পড়ুন

বর্তমান সম্রাটেরা ছিল মুসলমান কিন্তু অটোমান সাম্রাজ্য ছিল 1:00 বিস্তৃত। বহু জাতি, বহু সংস্কৃতি, বহু ভাষা, বহু ধর্মের মিলিত 1:00 সমাজ।
বিশ্বের অধিবাসী ছিল খ্রিষ্টান 5%। যদি সেই সময় যদি আমরা তুলনা করি তার যে প্রতিবেশি সাম্রাজ্যগুলো ছিল কলোনী মাস্টার ছিল তার তুলনায় অটোমান সাম্রাজ্যের রিলিজ তলায় ধর্মীয় সহনশীলতা ছিল অনেক বেশি।
মাঝে মাঝে যুদ্ধ সামাজিক অস্থিরতার সময় এই অবস্থা সাময়িক পরিবর্তন ঘটলেও সাধারণ ভাবে অ্যাকাডেমিক স্কলার এরা সবাই স্বীকার করে ধর্মীয় সহনশীলতার কথা ইন ফ্যাক্ট সহনশীলতা 1:00 ঐতিহাসিক প্রয়োজন ছিল। কারণ এটা ছিল 1:00 কৃষিভিত্তিক সমাজ। এই সমাজের ফাংশনের জন্য 1:00 স্থিতিশীলতা।

এই বিষয়টা মনে রাখবেন, আমরা এ বিষয়ে ফিরে আসব। শিল্প বিপ্লব আলাপ করার সুযোগ।
অটোমান সাম্রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা ছিল ইউনিট তাদের সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত অংশে তাদের সামাজিক,ধর্মীয় এবং অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কোনও হস্তক্ষেপ করত না। শাসন ব্যবস্থা ছিল ডিসেন্ট্রালাইজ।
বিকেন্দ্রীকৃত স্থানীয়দের দিয়ে এসে গভর্নিং কাউন্সিল তৈরি করত। তারাই শাসন চালাতো। এমনকী ট্যাক্স কালেকশন ছিল ডিসেন্ট্রালাইজড।
ট্যাক্স আদায়ের অধিকার কিনে নিতে হত কেন্দ্র থেকে আর নির্ধারিত হারে 1:00 নিয়মের মধ্যে থেকে স্থানীয় কালেক্টররা ট্যাক্স আদায় করত। অটোমান সাম্রাজ্যের মানুষেরা ছিল সুখী।
ইস্তানবুলের আরেক নাম ছিল দ্য সাদাত সুখের আবাস।

আরো পড়ুন

ও 1:00 প্রশ্ন করেছে, কেউ কেন অটোমান সাম্রাজ্যে মানুষ সুখে ছিল? একজন খুব গুছিয়ে কারণগুলো লিখেছে, সময় থাকলে পড়ে দেখতে পারেন। আমি আরেকটা বিস্তারিত গেলাম।
তুরস্ক সব ধর্মের মানুষের জন্য এত আগ্রহের জায়গা ছিল যে কোথাও কেউ নিপীড়িত হলে তারা বলতো তোমরা অটোমান সাম্রাজ্যের জার্মানিতে নিপীড়িত হয়ে তুরস্কে আসা রাব্বি আইজাক যেতে।
সেটা যদি ভাইদেরকে আহ্বান জানাচ্ছে, অটোমান সাম্রাজ্যের শান্তিতে বসতি গড়তে এই ছবিটা আঁকা হয়েছে সেই ঐতিহাসিক ঘটনা কে কেন্দ্র করে যখন ইস্তাম্বুলে যার প্রতি ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ইহুদিদের কে স্বাগত জানাচ্ছেন ইসলাম।

অটোমান সাম্রাজ্যে ঠিক কখন থেকে ফিলিস্তিনি ইহুদি বসতি স্থাপিত হয়েছিল। বর্তমানে যা 15 শতকে তিন ফিউশনের সময় থেকেই ইহুদি অভিবাসীদের গ্রহণ করা শুরু করে।
ইনফ্লেশন মানে কি জানত? ক্যাথলিক চার্চের তৈরি করা 1:00 আইনি কাঠামো যা দিয়ে অখ্রিষ্টানদের কে শাস্তি দেওয়া হত। বস এর জন্য শিকার হত মুসলমান ইহুদিরা।
বাংলাদেশের মুসলমানদের কেউ কেউ ডাকেনি আইন চায়। কিন্তু এটা ভুলে যান এই ইনক্লুশন এর মাধ্যমে ব্লাসফেমি আইন দিয়ে মুসলমান আর ইহুদিদেরকে একই সাথে নিশ্চিহ্ন করার চেষ্টা করা হয়েছিল। 15 শতকে ইউরোপে।

আরো পড়ুন

এরপর থেকেই অটোমান সাম্রাজ্যে ইহুদি অভিবাসীদের গ্রহণ করার 1:00 ঐতিহ্য ছিল। কারণ যেহেতু দুই ধর্মই এই অত্যাচারের শিকার হয়েছিল।ঠিক সেই সময়ে।
ফিলিস্তিন মানে অটোমান সাম্রাজ্যের সময়ে 18 শতকে ফিলিস্তিন কেমন ছিল?
ফিলিস্তিনের জনগোষ্ঠীর 85% ছিল মুসলিম। 10 খ্রিষ্টান পাঁচ পারসেন্ট ইহুদি অটোমান সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হয়ে সংস্কৃতির মধ্যে তারা বসবাস। ফিলিস্তিন সব সময় 1:00 আন্তর্জাতিক আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল। কারণ ছিল ফিলিস্তিনকে ঘিরে নানা পবিত্র স্থান ছিল সব ধরনের।